হোম » ট্যাগ আর্কাইভ

ট্যাগ আর্কাইভ

হাজেরার ফিরে আসা_তমসুর হোসেন

হাজেরার ফিরে আসা_তমসুর হোসেন

বাহির আংগিনায় বসে গৃহস্থালি কাজ করছে জোব্বের সেখ। কতদিন থেকে বৃষ্টি হচ্ছে না। চৈত্রের প্রচন্ড খরতাপে মাঠ ঘাট পুড়ছে। একটা ফটিক জল প্রকৃতির তৃষ্ণার দাবী কন্ঠের আকুলতায় ধারণ করে পেছন বাড়ির উঁচু তেতুল গাছে একটানা ডেকে যাচ্ছে। রোদ ঝলসানো দুপুরে জোব্বের শেখের কানে তৃষ্ণার্ত পাখির সে আর্তি  ক্ষণস্থায়ী সংসারের নিস্ফল রোদন হয়ে ধ্বনিত হচ্ছে। তার প্রথমা স্ত্রী গুনবতী হাজেরার ওফাত ...

আরো পড়ুন

অফিসনামা_তমসুর হোসেন

অফিসনামা_তমসুর হোসেন

সান্টুর এখন সুদিন। অনেক ব্যবসা তার । তার ওপর দলের জেলা কমিটির পদে সমাসীন। আংগুল ফুলে কলাগাছ হতে তার বেশিদিন লাগবে না। হাজার মানুষকে গিললেও তাকে খারাপ বলবে না সমাজ। মমিন তার অফিসের সামান্য একজন কর্মচারী। একই ক্লাশে পড়েছে। রাত জেগে পড়ে করে কি করতে পেরেছে মমিন। টাকার অভাবে বেশিদূর গড়াতে পারেনি। চাকুরীর জন্য ইন্টারভিঊ দিয়ে দিয়ে হতাশ হয়েছে। এখন ...

আরো পড়ুন

স্বাধীনতার রঙ_তমসুর হোসেন

স্বাধীনতার রঙ_তমসুর হোসেন

রহিতনের মনে আজ এতো খুশি কে ঢেলেছে। যেদিকেই তাকায় সেদিকেই আনন্দের ঢেউ। বাতাসের তরঙ্গে নাচছে খুশি আর খুশি। রহিতন চোখ বড় করে আকাশের মেঘ দেখে। কাপাস তুলোর মতো ঝলমলে মেঘ সে জীবনে দেখেনি। সজনে গাছে খোশবুদার ঝুমঝুম ফুল ফুটেছে। সবজে সাদাটে উলুঝুলু জংলী ফুল। রহিতনের মনটা অচেনা রাজ্যে হারিয়ে যাচ্ছে। তার ভেতরের আনন্দ মুরগীর বাচ্চার মতো সারা আঙিনায় কচি পা ...

আরো পড়ুন

খেত মজুরের দিনলিপি_তমসুর হোসেন

খেত মজুরের দিনলিপি_তমসুর হোসেন

মাঠে কাজ করে বাজারে যেয়ে খেত মালিকের কাছে মজুরী আদায় করার মত জিল্লতির অন্য কোন বিষয় থাকতে পারে তা ময়জুদ্দীর জানা নেই। আজ কোন আটখুড়ার মুখ দেখে যে প্রভাত হয়েছিল তার। ঠিক করা কাজ ফসকে গেল। দিন দশেক থেকে সে মরিচ তোলার কাজে ব্যস্ত ছিল তফুর ধনির খেতে। ফ্যাকাশে গাছে টকটকে সবজেটে লাল লাল মরিচ। হাত ভরে তুলতে কত আনন্দ। ...

আরো পড়ুন

সান্তার মলিন ছবি এবং লেবু গাছ_তমসুর হোসেন

সান্তার মলিন ছবি এবং লেবু গাছ_তমসুর হোসেন

যুদ্ধে যাবার জন্য মন উতলা হলো মমনুলের। নদীর কোল ঘেঁষা গ্রামে তার বাড়ি। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের খবর শুনে মমনুল দেশের শত্রুর বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য উজ্জীবিত হলো। মমনুলের বাড়ি থেকে চার মাইল দূরে ইউনিয়ন পরিষদ অফিসে রাজাকার ক্যাম্প বসিয়েছে। সেখান থেকে টহলে বেড়িয়ে তারা গ্রামবাসীদের হাঁস মুরগি গরু ছাগল এমনকি টাকাকড়িও কেড়ে নিয়ে যায়। মমনুলের গ্রামের নাম সাবানন্দ। সেখানে যদিও ...

আরো পড়ুন

ধানচোর_তমসুর হোসেন

%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%9a%e0%a7%8b%e0%a6%b0_%e0%a6%a4%e0%a6%ae%e0%a6%b8%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%b9%e0%a7%8b%e0%a6%b8%e0%a7%87%e0%a6%a8

বৃষ্টি থেমে গেছে। মেঘ কেটে ফর্সা হয়েছে আকাশ। ঘরের ভেতর সবাই নতুন ধানের ভাতের গন্ধে বিভোর। অন্ধকার ঘরটা ক্ষুধাক্লান্ত চোখের নিষ্পভ চাহনিতে চকচক করছে। বাইরে যেন কার ফিসফাস কথার আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। জসীম ভড়কে যায়। চুরি করে কেটে আনা ধান দ্রুত চালে পরিণত করার কাজে ব্যস্ত থাকায় বাইরের অবস্থা আন্দাজ করতে পারেনি সে। সে ভেবেছে বৃষ্টি এখনও চলছে। সবকিছু তছনছ ...

আরো পড়ুন

মেঘের খামে চুমকিদানা অসামান্য ছড়াগ্রন্থ_তমসুর হোসেন

%e0%a6%ae%e0%a7%87%e0%a6%98%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%96%e0%a6%be%e0%a6%ae%e0%a7%87-%e0%a6%9a%e0%a7%81%e0%a6%ae%e0%a6%95%e0%a6%bf%e0%a6%a6%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%be-%e0%a6%85%e0%a6%b8%e0%a6%be

সাজজাদ হোসাইন খান। এক দক্ষ ছড়াকার। যার সুনিপুণ স্পর্শে ছড়া হয়ে ওঠে বিমূর্ত বীণার ঝংকার। রজনীর গভীরে পূর্ণ চাঁদের প্রাণখোলা জোসনায় বিনিদ্র আলাপ। ছড়া যে এতো ভালোলাগার বিষয় হতে পারে, অন্তরের নিভৃত শাখায় নাড়া দিয়ে দোলাতে পারে আবেগ বিহ্বল বাসনা পল্লব তা তার অসামান্য সৃষ্টি মেঘের খামে চুমকি দানা না পড়লে বোঝা যাবে না। এ যেন এক হালকা পালের পানসি। ...

আরো পড়ুন

হৃদয়ের গভীর টানে_তমসুর হোসেন

%e0%a6%b9%e0%a7%83%e0%a6%a6%e0%a7%9f%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%97%e0%a6%ad%e0%a7%80%e0%a6%b0-%e0%a6%9f%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a7%87_%e0%a6%a4%e0%a6%ae%e0%a6%b8%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%b9%e0%a7%8b

আকবর আলীর খুব লস হয়ে গেলো। এক কেজি চিনি আর তিন পোয়া ময়দার ছনবাবরি বানিয়ে সারাটা দিন রোদে পুড়ে যে মাল পেয়েছে তা বিক্রি করে তবিল বাঁচলো না। দেড় কেজি ছনবাবরি যদি বাজারে বিক্রি করা যেতো তবুও কমছে কম পঞ্চাশ টাকা লাভ হতো। এই মাল বদল করে বাড়ি বাড়ি ঘুরে পুরণো চটি, স্যান্ডেল, ভাঙ্গা বোতল, বালতি, গ্লাস কিনলে দুই’শ টাকা ...

আরো পড়ুন